মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ১২:২২ পূর্বাহ্ন

যে চার প্রশ্ন মাথায় রেখে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪, ৩.৪৬ পিএম
নেদারল্যান্ডস ও বাংলাদেশ দুই দলই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের আশা জাগিয়ে হেরে গিয়েছে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২৪ এর গ্রুপ-ডি’র গুরুত্বপূর্ণ এক ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস। ক্যারিবীয় রাষ্ট্র সেইন্ট ভিনসেন্ট অ্যান্ড গ্র্যানেডাইন্সের রাজধানী কিংসটাউনে অনুষ্ঠিত হবে এই ম্যাচটি যেখানে গত এক দশকে কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ হয়নি।

নেদারল্যান্ডস ও বাংলাদেশ দুই দলই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের আশা জাগিয়ে হেরে গিয়েছে।

দুই দলেরই একটি করে জয় আছে এবং সুপার এইটে ওঠার ভালো সম্ভাবনা রয়েছে।

এসব হিসেবের বাইরেও এই ম্যাচে আলোচনায় নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে বাংলাদেশের নিকট অতীতের হারের স্মৃতি। যদিও ফরম্যাট আলাদা, গত বছরের এই ম্যাচটি হয়েছিল ওয়ানডে বিশ্বকাপে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে। পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশের অনেক ক্রিকেট সমর্থক ভিড় জমিয়েছিলেন, হারের স্বাদ নিয়ে ফিরেছেন।

আর নেদারল্যান্ডস দলটা এখন যে কোনও দলের বিপক্ষেই জয়ের প্রত্যাশা নিয়ে মাঠে নামে, ২০২২ সালে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে এবং ২০২৩ সালে ওয়ানডে ফরম্যাটের বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে দিয়েছিল দলটি।

২০১৪ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৪৫ রানের জয় পেয়েছিল ডাচ ক্রিকেট দল।

তাই আইসিসির এই সহযোগী দলের বিপক্ষে বাংলাদেশ স্পষ্ট ফেভারিট থাকবে এমন দাবি করা কঠিন।

তারওপর বাংলাদেশ ক্রিকেট দল কিছু প্রশ্নের উত্তর এখনও খুঁজে বেড়াচ্ছে।

                             (ব্যাট ও বল হাতে খারাপ সময় কাটাচ্ছেন সাকিব আল হাসান)

সাকিব আল হাসান ফিরবেন নিজের পুরনো রূপে?

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আসার পর থেকেই সাকিব আল হাসান বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় তারকা ও সেরা পারফর্মার।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বাংলাদেশের তুলনায় ওপরের সারির দলগুলোর বিপক্ষে ম্যাচ জয়ে সাকিবই সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছেন।

এই বছর সেই সাকিবকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না, একটা সময় সাকিবের ব্যাটে ফর্ম না থাকলেও বল হাতে সেটা পুষিয়ে দিতেন।

এবারের দুই ম্যাচে সাকিব বল হাতেও নিষ্প্রভ ছিলেন।

তবে সাকিবের এবারের অফ ফর্মটা দুই ম্যাচের ব্যাপার না, এই বছর সাকিব আল হাসান টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে লোয়ার অর্ডার ব্যাটার জাকের আলি বা রিশাদের চেয়েও কম রান করেছেন।

সাত ম্যাচে ১১ গড়ে মাত্র ৬৯ রান, স্ট্রাইক রেটও ১০০ এর নিচে।

সাকিবের একটানা এতো খারাপ সময় এর আগে কখনো যায়নি।

বল হাতে সাত ম্যাচে নিয়েছেন ৬ উইকেট।

           (অনেকে মনে করেন রাজনৈতিক ব্যস্ততার কারণে ক্রিকেটে পুরোপুরি মনোনিবেশ করতে পারছেন না মি. হাসান।)

ইএসপিএন ক্রিকইনফোর বিশ্লেষণে তামিম ইকবাল বলেন, “সাকিব এর আগেও ক্যারিয়ারে এমন কিছু মুহূর্ত পার করেছেন এবং জানেন কীভাবে ফিরে আসতে হয়। গত এক বছর ধরে সাকিব তেমন ভালো করতে পারেননি, কিন্তু বাংলাদেশের ক্রিকেটে সাকিব বড় অবদান রেখেছেন, অনেক অর্জন তার নামের পাশে।”

বাংলাদেশের সমর্থকরাও চাইবেন সাকিব যাতে নিজের ফর্মে ফিরে আসেন।

তবে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে চারটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা সাকিবের সর্বোচ্চ রান ১২।

রান না পাওয়া ছাড়াও সমালোচনা হচ্ছে সাকিবের ব্যাটিংয়ের ধরন নিয়ে। পরপর দুই ম্যাচেই সাকিব শর্ট বলে ক্যাচ তুলে দিয়েছেন এমন সব সময়ে যখন উইকেটে টিকে থাকা জরুরি ছিল।

ক্রিকবাজের বিশ্লেষণে ভারতের সাবেক ক্রিকেটার ভিরেন্দার সেহওয়াগ সাকিবের কড়া সমালোচনা করে বলেছেন সাকিবের এখন অবসর নেয়া উচিৎ।

সাকিবের শট সিলেকশনেরও তীব্র সমালোচনা করেন সেহওয়াগ।

এর মাঝে আইসিসির র‍্যাংকিংয়েও দুঃসংবাদ এসেছে সাকিবের জন্য। গত ১২ বছরে এই প্রথম এই টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ে পাঁচ নম্বরে নেমে গেছেন।

ভারতের জনপ্রিয় ক্রিকেট উপস্থাপক ও সাবেক ক্রিকেটার আকাশ চোপড়া নিজের বিশ্লেষণে বলেন, বাংলাদেশ একটা জায়গাতেই সবচেয়ে বেশি আহত হচ্ছে সেটি হলো সাকিব আল হাসান।

বিশ্লেষকদের অনেকে মনে করেন সাকিব আল হাসানের চোখের সমস্যা এবং রাজনৈতিক ব্যস্ততার কারণে তিনি ক্রিকেটে পুরোপুরি মনোনিবেশ করতে পারছেন না, এতে সাকিবের এবং বাংলাদেশ দলের ক্ষতি হচ্ছে।

২০২৪ সালে বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচনে সাকিব আল হাসান সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

এই বিশ্বকাপ শুরুর আগেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল নিজেদের ওয়েবসাইটে একটি বিশেষ ফিচার করেছিল সাকিব আল হাসানকে নিয়ে যার শিরোনাম ছিল, “যে তারকা বাংলাদেশকে স্বপ্ন দেখতে শিখিয়েছেন”।

সেই তারকাকে আগের রূপে ফিরে পেতে চাইবেন সতীর্থ ও সমর্থকেরা।

সাকিব আল হাসানকে নিয়ে নাজমুল হোসেন শান্ত ম্যাচের আগে প্রেস কনফারেন্সে বলেন, “সাকিব ভাইয়ের পারফরম্যান্স নিয়ে কেউই চিন্তিত নই, উনি সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন, আশা করি তিনি কাল আরও ভালো ডেলিভার করবেন।”

সাকিবের চোখের সমস্যা আছে বলে মনে করেন না শান্ত, তিনি বলেন একটি দুটি ইনিংস খারাপ হতেই পারে।

        ( বাংলাদেশ ওয়ানডে ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ১৪২ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল।)

নেদারল্যান্ডসের বোলারদের সামলাতে পারবে বাংলাদেশ?

পল ভ্যান মিকিরেন, লোগান ভ্যান বিক ও বাস ডি লিডা এখনও পর্যন্ত দুর্দান্ত ফর্মে আছেন এবারের বিশ্বকাপে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচে ১২ রানে ৪ উইকেট ফেলে দিয়ে একরকম চাঞ্চল্য ছড়িয়ে দিয়েছিলেন তারা।

শেষ পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকা পরাজয় এড়ালেও এই স্পেল মনে থাকবে ক্রিকেট সমর্থকদের।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০২৩ বিশ্বকাপের দলেও ছিলেন এই তিন জন, বাংলাদেশ ওয়ানডে ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ১৪২ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। সেই ম্যাচে পল ভ্যান মিকিরেন নিয়েছিলেন ৪ উইকেট।

এবারে সাথে যোগ হয়েছেন ভিভিয়ান কিংমা।

এর আগে, ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পল ভ্যান মিকিরেন ২ উইকেট নিয়েছিলেন বাংলাদেশের বিপক্ষে। সেই ম্যাচে বাংলাদেশ ৯ রানের জয় পেলেও ৭৬ রানে ৫ উইকেট চলে গিয়েছিল। টপ অর্ডার ছিল ভঙ্গুর, এবারেও তাই।

বাংলাদেশের টপ অর্ডারের পাশে বড় প্রশ্নবোধক

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের টপ অর্ডার খুবই অনিয়মিত পারফর্ম করছে বহুদিন ধরেই, এই বিশ্বকাপেও সৌম্য সরকার শূন্য রানে আউট হওয়ার পর দল থেকে বাদ পড়েছেন।

অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত রান করতে পারছেন না।

তবে তিনি প্রেস কনফারেন্সে জানিয়েছেন, বাংলাদেশ যেভাবে খেলছে তাতে তিনি সন্তুষ্ট।

লিটন দাশ এক ম্যাচে রান পেয়েছেন আরেক ম্যাচে খুব হালকাভাবে উইকেট দিয়ে এসেছেন।

তাওহীদ হৃদয়ের ফর্মের কারণে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল কিছুটা ভারসাম্য রক্ষা করতে পারছে।

নাজমুল হোসেন শান্ত ম্যাচের আগে প্রেস কনফারেন্সে বলেন, “আমি আশা করি না সাত জন ব্যাটারই ভালো করবে, আমি চাইবো যে ভালো করে সে যাতে শেষ করে আসেন।”

                               (লোগান ভ্যান বিক- নেদারল্যান্ডসের বোলিং অলরাউন্ডার)

উইকেট কেমন হতে পারে?

কিংসটাউনের এই মাঠে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হয় না দশ বছর, এখানে কখনো ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের খেলাও হয়নি তাই দুই দল খুব বেশি তথ্য উপাত্ত পাচ্ছে না এই ম্যাচের আগে।

তবে নেদারল্যান্ডসের লোগান ভ্যান বিক ম্যাচের আগে প্রেস কনফারেন্সে বলেন, “যতটুকু উইকেট দেখলাম তাতে মনে হয়েছে শক্ত উইকেট, ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো হবে। বাংলাদেশ কিছুক্ষণ আগে ব্যাট করছিল, বাতাস থাকবে এই মাঠে এটাও একটা বড় ফ্যাক্টর হতে পারে, যেহেতু দশ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ম্যাচ হয় না অনেক অজানা ব্যাপার থাকবে এই ম্যাচ ঘিরে।”

লোগান বলেছেন, “আমাদের দিনে আমরা যে কোনও দলকে হারাতে পারবো, বাংলাদেশের বিপক্ষে আমরা সেটিই চেষ্টা করবো।”

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নিয়ে উচ্চ প্রশংসা করেন তিনি, “মোস্তাফিজ আইপিএলে ভালো সময় কাটিয়েছেন, সাকিব সেরা অলরাউন্ডারদের তালিকায় আছেন বহু বছর ধরে। আমরা দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে যেভাবে প্রস্তুতি নিয়েছি আমরা সেভাবেই প্রস্তুত হচ্ছি।”

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচটাকে ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচ বলছেন লোগান।

নেদারল্যান্ডসের জন্য আরেকটা ইতিবাচক ব্যাপার হতে পারে বাংলাদেশের সাবেক দুই কোচ রাসেল ডমিঙ্গো এবং রায়ান কুক। লোগান ভ্যান বিক বলেছেন, “এটা আমাদের পক্ষে ভালো কিছু বয়ে আনতে পারে।”

বিবিসি নিউজ বাংলা

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024