শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন

কোটাবিরোধী আন্দোলন: আইনি পথে সমাধানের জোর তৎপরতা সরকারের

  • Update Time : মঙ্গলবার, ৯ জুলাই, ২০২৪, ১০.১৭ এএম

সারাক্ষণ ডেস্ক

প্রথম আলোর একটি শিরোনাম “কোটাবিরোধী আন্দোলন: আইনি পথে সমাধানের জোর তৎপরতা সরকারের”

সরকারি চাকরিতে কোটা নিয়ে শিক্ষার্থীদের দাবি যৌক্তিক, তবে তাঁদের চলমান আন্দোলন অযৌক্তিক বলে মনে করছে সরকার ও আওয়ামী লীগ। এর ব্যাখ্যায় সরকারের সূত্রগুলো বলছে, বিষয়টি যখন আদালতে বিচারাধীন, তখন জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করে এমন কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

এ পরিস্থিতিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের আদালতে আইনজীবী দিয়ে তাঁদের বক্তব্য উপস্থাপন করার বা পক্ষভুক্ত হওয়ার পরামর্শ সরকারের। কারণ, সরকার কোটার বিষয়ে আদালতের মাধ্যমেই একটা সমাধান চাইছে। সে জন্য আদালতের প্রক্রিয়া দ্রুত করার কোনো সুযোগ থাকলে, সে উদ্যোগও সরকার নেবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে।

গতকাল সোমবার দুপুরে আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের চার মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন।এতে এসব বিষয় আলোচনা হয়েছে বলে উপস্থিত একাধিক সূত্র জানিয়েছে। বৈঠকে অংশ নেওয়া অন্য চার মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী হলেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ এ আরাফাত ও শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী শামসুন্নাহার।

আজ মঙ্গলবার গণসংযোগ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। পাশাপাশি চলমান ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন ও ছাত্র ধর্মঘটের কর্মসূচি চলবে। তবে পরদিন বুধবার আবারও অবরোধসহ কঠোর কর্মসূচির পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন তাঁরা। আগামীকাল সংবাদ সম্মেলনে সেই কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

এদিকে চার মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে এমন আলোচনাও এসেছে যে, কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে রাজনীতি ঢুকে পড়ছে। বিএনপিসহ সরকারবিরোধী দলগুলো সক্রিয় হয়েছে। দলগুলো এই আন্দোলনের সুযোগ নিয়ে একটা অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে, এমন আশঙ্কাও রয়েছে। তবে শঙ্কা থাকলেও এবং কোনো রকম উসকানি দেওয়া হলেও সরকার সতর্ক থাকবে। এ ছাড়া প্রতিদিন রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে ও দেশের বিভিন্ন জায়গায় রাস্তায় শিক্ষার্থীদের মিছিল ও অবস্থানের কারণে জনদুর্ভোগ হচ্ছে।

 

 

ইত্তেফাক এর একটি শিরোনাম “রাশিয়ায় মোদি, ক্ষুব্ধ যুক্তরাষ্ট্র?”

২২তম ইন্দো-রাশিয়া সামিটে যোগ দিতে দুই দিনের রাশিয়া সফরে গেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সোমবার (৮ জুলাই) তিনি মস্কো বিমানবন্দরে পৌঁছান। রাশিয়া সফরের পর মোদি যাবেন অস্ট্রিয়ায়। ইউক্রেনের সঙ্গে রাশিয়ার যুদ্ধের পরিপ্রেক্ষিতে নরেন্দ্র মোদির এই সফরকে বেশ তাৎপর্যপূর্ণভাবে দেখছে পুরো বিশ্বের কূটনীতি। ভারতে তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর এটি মোদির প্রথম রাশিয়া সফর।

গত রোববার মোদি এবং পুতিনের মধ্যে আলোচ্য বিষয় নিয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেশকভ রাশিয়ার সরকারি সংবাদ চ্যানেল ভিজিটিআরকেকে বলেন, ‘এটা (মোদির) সরকারি সফর। আমরা মনে করি, আলোচ্যসূচির বাইরের বহু বিষয় নিয়েও দুই রাষ্ট্রপ্রধান কথা বলবেন।’রুশ-ভারত সম্পর্কের ক্ষেত্রে এই বৈঠক গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে বলেও জানান তিনি।

টিভি চ্যানেলের সাক্ষাত্কারে পেশকভকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, পশ্চিমা বিশ্ব মোদির রাশিয়া সফরকে কীভাবে দেখছে? জবাবে ক্রেমলিনের মুখপাত্র বলেন, ‘ওরা হিংসায় জ্বলছে। তার মানে ওরা নিবিড়ভাবে এই সফরের দিকে নজর রাখছে। তাদের এই নজরদারিই বৈঠককে গুরুত্বপূর্ণ করে তুলছে।’

বিবিসি বলছে, মোদির রাশিয়া সফর একাধিক পশ্চিমা দেশের কাছে অস্বস্তির কারণ হয়ে উঠেছে। এই দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের আর কী অর্থ হতে পারে, সেই বিষয়ে সন্দিহান পশ্চিমা দেশগুলো।

লন্ডনের কিংস কলেজে সাউথ এশিয়ান স্টাডিজের প্রফেসর ক্রিস্টোফ জাফরেলট জানিয়েছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদির রাশিয়া সফরের ভূ-রাজনৈতিক তাৎপর্য রয়েছে।

 

যুগান্তরের একটি শিরোনাম “ছয় জেলায় দুপুরের মধ্যে ৬০ কিমি বেগে ঝড়ের আশঙ্কা”

দেশের ছয় জেলার ওপর দিয়ে দুপুরের মধ্যে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) ভোর ৫টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের নদীবন্দরগুলোর জন্য দেয়া আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ  মো. বজলুর রশিদের সই করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘কুমিল্লা, নোয়াখালী, বরিশাল, পটুয়াখালী, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পূর্বদিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকে ০১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।’

এদিকে আবহাওয়া অফিসের অপর এক বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, সন্ধ্যা পর্যন্ত দেশের সব বিভাগে অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে। বৃষ্টিপাতের প্রবণতা কয়েক দিন অব্যাহত থাকতে পারে।

 

 

বণিক বার্তার একটি শিরোনাম “অর্থনৈতিক সংকট-মূল্যস্ফীতি দেশের খাদ্যনিরাপত্তাকে আরো নাজুক করে তুলছে”

সামনের দিনগুলোয় বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে খাদ্যনিরাপত্তা পরিস্থিতি আরো অবনতির দিকে যাবে বলে আশঙ্কা করছে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও)। বাংলাদেশের নামও এ তালিকায় রয়েছে। এফএও মনে করছে, বাংলাদেশের খাদ্যনিরাপত্তা পরিস্থিতিকে আরো নাজুক অবস্থানে ঠেলে দিচ্ছে অর্থনৈতিক সংকট, উচ্চ মূল্যস্ফীতি ও চরমভাবাপন্ন আবহাওয়া। রোহিঙ্গা সংকট এ চাপকে আরো বাড়িয়ে তুলছে।

 

মানবজমিনের একটি শিরোনাম “বগুড়ায় বাস-কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে নিহত ৪,আহত ৮”

বগুড়ায় বাস-কাভার্ডভ্যান মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ চারজন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন ৮ জন। সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে বনানীর লিচুতলার ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-কাভার্ডভ্যানের চালক বরিশালের হিজলা গ্রামের হৃদয় (৩০), সিরাজগঞ্জের কাজীপুরের জামাল হোসেন (৩৫), শামীম হোসেন (৪০) ও অজ্ঞাত এক নারী।

কুন্দুরহাট হাইওয়ে থানার ওসি আব্বাস আলী জানান, ‘ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নওগাঁগামী শাহ ফতেহ আলী পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।’

তিনি আরও বলেন,‘নিহতদের মরদেহ শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। আহতরা হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগে চিকিৎসাধীন আছেন।’

 

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024