মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০৬:৪৩ অপরাহ্ন

‘মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত ছিল’ জ্বালানি তেলের দাম কমার সুফল মিলছে না, সৌদিতে বন্যার শঙ্কায় রেড অ্যালার্ট জারি

  • Update Time : বুধবার, ২০ মার্চ, ২০২৪, ৮.০২ পিএম

সারাক্ষণ ডেস্ক

 

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে দৈনিক কালের কণ্ঠের শিরোনাম, প্রবীণদের জন্য চ্যালেঞ্জ নবীন প্রার্থীরা,

বলা হচ্ছে, আসন্ন ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রবীণ প্রার্থীরা কঠিন পরীক্ষার মুখে পড়তে পারেন। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ এবার দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই সুযোগে দলের একসময়ের ত্যাগী ছাত্রনেতারা নির্বাচনের মাঠ কাঁপানোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বিএনপিসহ সমমনা দলগুলো এই নির্বাচনে অংশ না নিলেও সাবেক ছাত্রনেতাদের অংশগ্রহণে জমজমাট নির্বাচনের আভাস পাওয়া যাচ্ছে।  দেশের বিভিন্ন উপজেলায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এরই মধ্যে জনসম্পৃক্ততা বাড়িয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণের ইঙ্গিত দিয়ে রাখছেন সম্ভাব্য নবীন প্রার্থীরা। এতে তারা প্রবীণ প্রার্থীদের নির্বাচনি সরল অঙ্কে গরমিল পাকাতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্র জানায়, এবার চারটি ধাপে সমগ্র বাংলাদেশে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিয়েছে ইসি। কমিশনের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ভোটগ্রহণের সম্ভাব্য তারিখ প্রথম ধাপে ৪ মে, দ্বিতীয় ধাপে ১৮ মে, তৃতীয় ধাপে ২৫ মে এবং চতুর্থ ও শেষ ধাপে ১ জুন।

 

সৌদি আরবের সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজের প্রধান  শিরোনাম Red alert in Saudi Arabia: Heavy rainfall prompts school closures and warnings of flashfloods’.

খবরে বলা হচ্ছে,  এবার বিরূপ এবং প্রতিকূল আবহাওয়ার মুখোমুখি হয়েছে মরুর দেশ সৌদি আরব। রাজধানী রিয়াদ, বন্দরনগরী জেদ্দাসহ কয়েকটি শহরে মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় পবিত্র নগরী মক্কা-মদীনা ও তাবুকসহ বিভিন্ন জায়গায় জারি করা হয়েছে উচ্চপর্যায়ের সতর্কবার্তা বা রেড অ্যালার্ট।

গালফ নিউজের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে রিয়াদ, কাসিম, হাফর আল বাতিন এবং অন্যান্য বেশ কয়েকটি অঞ্চলে মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের পাশাপাশি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস স্থগিত করা হয়েছে। দেশটির জাতীয় আবহাওয়া দপ্তর ন্যাশনাল সেন্টার অব মেটিওরোলজি (এনসিএম) বিভিন্ন অঞ্চল, বিশেষ করে উত্তর তাবুক অঞ্চলে তীব্র বৃষ্টিপাতের শঙ্কায় রেড অ্যালার্ট জারি করেছে। উচ্চ-গতির বাতাস, দৃশ্যমানতা হ্রাস, শিলাবৃষ্টি এবং আকস্মিক বন্যার শঙ্কা জানিয়ে সতর্ক করেছে স্থানীয় আবহাওয়া সংস্থা। বুধবার (২০ মার্চ) পর্যন্ত সৌদি আরবের বেশিরভাগ অঞ্চলে অব্যাহত বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাসের সঙ্গে আবহাওয়ার পরিবর্তনের কারণে জনসাধারণকে ‘চরম সতর্কতা’ অবলম্বন করার আহ্বান জানিয়েছে সিভিল ডিফেন্স বিভাগ।

 

মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যম নিউ স্ট্রেট টাইমসের পত্রিকা পাতার প্রতিবেদন ‘’Pakistani kills friend over orange juice during iftar ‘’.

প্রতিবেদনে বলা হয়, মালয়েশিয়ায় ইফতারের সময় কমলার জুস খেয়ে ফেলায় এক বাংলাদেশিকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছেন এক পাকিস্তানি শ্রমিক। মঙ্গলবার দেশটির কারখানার শ্রমিক হোস্টেলে এ ঘটনা ঘটে। হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ওই শ্রমিককে গ্রেপ্তার করেছে মালয়েশিয়া পুলিশ। মালয়েশিয়ার শাহ আলম জেলা পুলিশের প্রধান সহকারী কমিশনার মোহাম্মদ ইকবাল ইব্রাহীম সাংবাদিকদের বলেন, ‘ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ৫১ বছর বয়সী সন্দেহভাজনের বিরুদ্ধে সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে। ২৬ মার্চ তাঁর রিমান্ড শেষ হবে।’

এর আগে এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, মঙ্গলবার সেকশন ৩৬ কারখানার শ্রমিক হোস্টেলে ৪৯ বছর বয়সী বাংলাদেশি ব্যক্তি ইফতার করার সময় অভিযুক্তের কমলার জুস খেয়ে ফেলেন। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। অভিযুক্ত ব্যক্তি রান্নাঘর থেকে ছুরি নিয়ে এসে ভুক্তভোগীকে একাধিকবার আঘাত করেন। নিউ স্ট্রেট টাইমসের প্রতিবেদন অনুসারে, এক প্রত্যক্ষদর্শী সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিট নাগাদ পুলিশকে খবর দেন এবং এর ১০ মিনিট পরই ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়। হত্যায় ব্যবহৃত ছুরিটি পুলিশ জব্দ করেছে এবং দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় তদন্ত চলছে।

 

দৈনিক মানবজমিনের প্রধান শিরোনাম জ্বালানি তেলের দাম কমার সুফলমিলছে না ।  

প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, দেশে জ্বালানি তেলের স্বয়ংক্রিয় মূল্য নির্ধারণ চালু করেছে সরকার। প্রথমবারের মতো স্বয়ংক্রিয় মূল্য নির্ধারণের ঘোষিত প্রজ্ঞাপনে চলতি মাসে জ্বালানি তেলের দাম সামান্য কমেছে।

কিন্তু প্রতিবেদক সরেজমিন দেখতে পেয়েছেন, জ্বালানি তেলের দাম কিছুটা কমলেও গণপরিবহনে ভাড়া কমেনি। তাছাড়া, নিত্যপণ্যের দামও কমেনি বলে সাধারণ ভোক্তারা জানিয়েছেন। রাজধানীতে চলাচলকারী একজন বাসযাত্রী অভিযোগ করে জানান, জ্বালানি তেলের দাম কমার সুফল তো আমরা সাধারণ জনগণ পাইনি। তাহলে ঢাকঢোল বাজিয়ে দাম কমানোর ঘোষণা দিয়ে লাভ কী হলো। বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় রেখে প্রতি মাসেই মূল্য সমন্বয় করা হবে। আগামী মাসে জ্বালানির তেলের দাম কমবে নাকি বাড়বে এমন প্রশ্নও এখন অনেকের মাঝে।

 

আবার বোয়িং প্রলোভন – দৈনিক দেশ রূপান্তরের প্রথম পাতার প্রধান শিরোনাম।

প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, লোকসানের দোহাই দিয়ে প্রায় ১৮ বছর আগে ঢাকা-নিউ ইয়র্ক রুটে বিমান বাংলাদেশের ফ্লাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। এ রুটে আবার ফ্লাইট চালু করতে আগ্রহী সরকারি বিমান সংস্থাটি। এ নিয়ে সরকারের হাইকমান্ড মার্কিন সরকারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে আসছে। কিন্তু এ রুটে ফ্লাইট চালুর ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র বোয়িং কোম্পানির উড়োজাহাজ বিক্রির বিষয়টি আবারও সামনে নিয়ে এসেছে বলে জানা গেছে। ঢাকায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসসহ দেশটির সরকারের গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তারা বিমানমন্ত্রী, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান, বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ (এমডি) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করছেন। কয়েক দিন আগে মার্কিন সরকারের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা দেশ রূপান্তরকে বলেছেন, বোয়িং কোম্পানির উড়োজাহাজ কিনলে বাংলাদেশ লাভবান হবে।

নিউ ইয়র্ক ফ্লাইট চালুর ব্যাপারেও তারা আশাবাদী। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারকে সব ধরনের উদ্যোগ নিতে হবে। নাম প্রকাশ না করে বেবিচকের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, নিউ ইয়র্ক ফ্লাইট চালু করতে যুক্তরাষ্ট্র বোয়িংয়ের বিষয়টি সামনে এনেছে। তারা অফিশিয়ালি না বললেও আকার ইঙ্গিতে জানিয়ে দিয়েছে বোয়িং কিনলে বিমানের নিউ ইয়র্ক ফ্লাইট চালু করাসহ সব ধরনের সুযোগ দেবে। ওই কর্মকর্তা আশা করছেন, বিমানের ঢাকা-নিউ ইয়র্ক ফ্লাইট দ্রুত চালু হবে।

 

কৃষি বিপণনের ‘যৌক্তিক’ দামে বাজারে তালগোল, এমন শিরোনাম করেছে দৈনিক সমকাল।

প্রতিবেদনের ভাষ্য, কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের ২৯ পণ্যের দর বেঁধে দেওয়া নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলা চলছে। রাজধানীসহ দেশের কোথাও নেই ‘যৌক্তিক মূল্য’ নির্ধারণের প্রভাব। উল্টো সব পণ্যের দর বেঁধে দিয়েই ‘বিচারিক ক্ষমতা’ নেই- এমন ধুয়া তুলে পুরোদমে মাঠছাড়া কৃষি বিপণন অধিদপ্তর। বাজারের এমন অস্থির সময়েও বন্ধ অধিদপ্তরের ‘কৃষকের বাজার’। এমনকি বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি) পরিচালিত বাজারেও মানা হচ্ছে না দাম। অন্য মন্ত্রণালয় যেখানে নিজেরাই সুলভ দরে পণ্য বিক্রি করছে, সেখানে বাজারে ইতিবাচক দৃষ্টান্ত রাখার মতো তেমন পদক্ষেপ নেই কৃষি মন্ত্রণালয়ের।

 

বাংলাদেশে বায়ু দূষণের ভয়াবহতা উঠে এসেছে দ্য ডেইলি স্টারের প্রতিবেদনে। শিরোনাম করা হয়েছে, Bangladesh breathed worst air last year

গত বছর বাংলাদেশের বাতাসের মান বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ ছিল। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্ধারিত ন্যূনতম মানেরও ১৫ গুণ বেশি ছিল দেশটির বায়ুর দুরাবস্থা। ওয়ার্ল্ড এয়ার কোয়ালিটি রিপোর্ট ২০২৩ অনুযায়ী, বাংলাদেশের বাতাসে থাকা আড়াই মাইক্রনের বস্তুকণার বার্ষিক গড় প্রতি ঘনমিটারে ৭৯ মাইক্রোগ্রাম। পরিস্থিতির ভয়াবহতা সম্পর্কে ওয়াকবিহাল থাকার দাবি করে পরিবেশমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, এই অবস্থা একদিনে তৈরি হয়নি। এর কোনো রাতারাতি সমাধানও নেই। “ইতোমধ্যেই দূষণের উৎসগুলো চিহ্নিত করা হয়েছে। সরকার সমাধানের লক্ষ্যে এগুচ্ছে,” যোগ করেন তিনি।

 

দৈনিক যুগান্তর প্রধান শিরোনাম করেছে – ‘মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত ছিল

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হলমার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. তানভীর মাহমুদ ও তার স্ত্রী কোম্পানির চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলামসহ ৯ জনকে দণ্ডবিধির ৪০৯ ধারায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোনালী ব্যাংক-হলমার্ক ঋণ জালিয়াতির এক মামলায় এ কারাদণ্ড দেওয়া হয়। একই সঙ্গে তাদের ৫ কোটি টাকা জরিমানাও করা হয়। রায়ের পর্যবেক্ষণে বিচারক বলেছেন, হলমার্ক ঋণ কেলেঙ্কারি দেশের ব্যাংকিং ইতিহাসে এক বিস্ময়কর ঘটনা। যে অপরাধীরা দেশের জনগণের আমানত, দেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থা, দেশের অর্থনীতিকে খেলা মনে করে তাদের মৃত্যুদণ্ডের মতো সাজা হওয়া উচিত। কিন্তু যে আইনে মামলা হয়েছে তাতে সর্বোচ্চ সাজা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

যাবজ্জীবন দণ্ডিত অন্য সাত আসামি হলেন-তানভীরের ভায়রা ও হলমার্ক গ্রুপের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) তুষার আহমেদ, টি অ্যান্ড ব্রাদার্সের পরিচালক তসলিম হাসান, ম্যাক্স স্পিনিং মিলসের মালিক মীর জাকারিয়া, প্যারাগন গ্রুপের এমডি সাইফুল ইসলাম রাজা, সাইফুল হাসান, নকশী নিটের এমডি মো. আবদুল মালেক ও আবদুল মতিন। বর্তমান বিধি অনুযায়ী যাবজ্জীবন সাজার মেয়াদ ৩০ বছর।

অপরদিকে রায়ে সোনালী ব্যাংকের তৎকালীন ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হুমায়ুন কবিরসহ (পলাতক) আরও ৭ আসামিকে ৫ বছর থেকে ১৭ বছর পর্যন্ত বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে। তারা হলেন-সাভারের হেমায়েতপুরের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. জামাল উদ্দিন সরকার, সোনালী ব্যাংক ধানমন্ডি শাখার জ্যেষ্ঠ নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেরুন্নেসা মেরি, সোনালী ব্যাংক প্রধান কার্যালয়ের সাবেক মহাব্যবস্থাপক ননী গোপাল নাথ ও মীর মহিদুর রহমান, উপব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) মাইনুল হক, উপমহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) সফিজউদ্দিন এবং এজিএম মো. কামরুল হোসেন খান। এরমধ্যে জামাল উদ্দিনকে ৫ বছর কারাদণ্ড দেন আদালত। সোনালী ব্যাংকের সাবেক এমডিসহ বাকি ৭ আসামিকে পৃথক দুই ধারায় ১৭ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। মঙ্গলবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১ এর বিচারক মো. আবুল কাশেম আলোচিত এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার আগে কারাগার থেকে তানভীর ও জেসমিনসহ বন্দি আসামিদের এজলাসে হাজির করা হয়। রায় শোনার পর আধা ঘণ্টা মাথা নিচু করে বসে থাকেন তানভীর ও জেসমিন দম্পতি। তারা নিজেরাও এ সময় কেউ কারও সঙ্গে কোনো কথা বলেননি। তানভীরের ভায়রাও ছিলেন নিশ্চুপ।

দুদকের আইনজীবী মীর আহমেদ আলী সালাম বলেন, মামলার সব আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি চাওয়া হয়েছিল। আদালত সবকিছু পর্যালোচনা করে রায় দিয়েছেন। তিনি হলমার্কের মতো একটি অস্তিত্বহীন ভুয়া প্রতিষ্ঠানের কাছে ঋণের নামে সোনালী ব্যাংক থেকে বিপুল অর্থ তুলে দেওয়ার ঘটনাকে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে দুর্গতি হিসাবে উল্লেখ করেন। বলেন, এ ধরনের দুর্গতি হলে রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্ব হুমকির মুখে পড়ে। আইন অনুযায়ী সাজা মৃত্যুদণ্ড থাকলে আদালত তাই দিতেন বলে বিচারক রায়ের পর্যবেক্ষণে উল্লেখ করেছেন বলে জানান তিনি।

 

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024