মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১২:৪৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

বাংলাদেশসহ ৬ দেশে ৯৯ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানি করবে ভারত

  • Update Time : শনিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২৪, ৬.২৬ পিএম

সারাক্ষণ ডেস্ক

 

 

প্রথম আলোর একটি শিরোনাম “এখন আওয়ামী লীগ পাকিস্তানের প্রশংসায় গদগদ”

 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দ্বিচারিতা নীতি অবলম্বন করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের মুখে মুখে পাকিস্তানের বিরোধিতা করেন। কয়েক দিন আগে তাদের উন্নয়ন নিয়ে পাকিস্তান কথা বলায় কাদের সাহেব বলেছেন, পাকিস্তান তাদের উন্নয়ন দেখলেও বিএনপি দেখে না। এখন তারা পাকিস্তানের প্রশংসায় গদগদ।’

আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীর মিরপুরে সাত দিনের ধারাবাহিক কর্মসূচির অনুষ্ঠানে রুহুল কবির এসব কথা বলেন। এই কর্মসূচিতে প্রচণ্ড দাবদাহে জনসাধারণের মধ্যে বোতলজাত পানি ও স্যালাইন বিতরণ করে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর উত্তরের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক ফরহাদ হালিম। উত্তর বিএনপির সদস্যসচিব আমিনুল হকের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য দেন দলের কেন্দ্রীয় নেতা তাবিথ আউয়াল, মাহমুদুর রহমান, আনোয়ারুজ্জামান, মোস্তফা জামান, আতাউর রহমান প্রমুখ।

রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেন, সরকারের অপরিকল্পিত নগরায়ণ, বনজঙ্গল উজাড়, নদী-নালা, খাল-বিল ভরাট এবং তাপবিদ্যুৎ ও কয়লাবিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করে মানুষের জীবনকে সংকটে ফেলে দিয়েছে। বাংলাদেশকে গ্যাস চেম্বারে পরিণত করা হয়েছে। তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করার কারণে ফল গাছে এখন আর ফল ধরছে না।

বাংলাদেশকে লুটপাটের আখড়া বানানো হয়েছে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, দুর্নীতি আর লুটপাটের মাধ্যমে দেশকে উজাড় করে দেওয়া হয়েছে। সংসদকে পরিণত করা হয়েছে বিনোদন কেন্দ্রে। তিনি বলেন, এত গুম, এত নির্যাতন, এত নিপীড়ন, তারপরও মানুষের কণ্ঠকে স্তব্ধ করা যায়নি।

 

 

 

মানবজমিন এর শিরোনাম “মুসলিম ইস্যু তুলে প্রচারণা থেকে পদত্যাগ করলেন মহারাষ্ট্র কংগ্রেস নেতা”

 

ভারতের মহারাষ্ট্রে নির্বাচনী প্রচারণা কমিটি থেকে পদত্যাগ করেছেন কংগ্রেস নেতা মুহাম্মদ আরিফ নাসিম। এর মধ্য দিয়ে দলের ভিতরে বিরোধ স্পষ্ট হয়ে উঠেছে সেখানে। আরিফ নাসিম খান লিখেছেন, মহারাষ্ট্রে লোকসভা নির্বাচনে আসন আছে ৪৮টি। এর মধ্যে একটি আসনেও কোনো মুসলিম প্রার্থী দেয়া হয়নি। এমন অসন্তোষের কথা জানিয়ে তিনি চিঠি লিখেছেন দলের প্রধান মল্লিকার্জুন খার্গের কাছে। তাতে তিনি বলেছেন, যেহেতু বিরোধী মহাবিকাশ আঘাদি (এমভিএ) ব্লক কোনো মুসলিম প্রার্থী দেয়নি, তাই তিনি লোকসভা নির্বাচনের প্রচারণা কমিটি থেকে পদত্যাগ করছেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনডিটিভি।

এতে বলা হয়, আরিফ নাসিম আরও বলেছেন, সংখ্যালঘু (মুসলিম) সম্প্রদায় থেকে কমপক্ষে একজন প্রার্থীকে কংগ্রেস মনোনয়ন দেবে বলে বিভিন্ন মুসলিম সংগঠন, নেতা এবং দলীয় কর্মীরা আশায় ছিলেন। সারা মহারাষ্ট্র এমন আশায় ছিল। কিন্তু দুর্ভাগ্য তা হয়নি। ৬০ বছর বয়সী এই রাজনীতিক বলেন, দলের সব নেতা এবং কর্মীরা এখন তার কাছে জানতে চাইছেন- কংগ্রেস যে মুসলিমদের ভোট চায়, কিন্তু তাদের কোনো প্রার্থী নেই কেন? এসব কারণে আমি মুসলিমদের সামনে দাঁড়াতে পারবো না এবং তাদের প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবো না।

উল্লেখ্য, মহারাষ্ট্রে শিবসেনা এবং এনসিপির সঙ্গে জোট বেঁধেছে কংগ্রেস।

এসব দল নিয়ে সেখানে গড়ে উঠেছে বিরোধী মহাবিকাশ আঘাদি (এমভিএ)। এখানে লোকসভার ৪৮টি আসনের মধ্যে ১৭টিতে লড়ছে কংগ্রেস। মুম্বই নর্থ সেন্ট্রাল থেকে দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন মুহাম্মদ আরিফ খান। কিন্তু দল সেখানে প্রার্থী বাছাই করে শহর ইউনিটের প্রেসিডেন্ট বর্ষা গাইকোয়াদকে। ২০১৯ সালে তিনি মুম্বইয়ের চান্দিবেলি থেকে বিধানসভা নির্বাচন করেছিলেন। তখন ৪০৯ ভোটে হেরে যান। বার্তা সংস্থা পিটিআইকে আরিফ খান বলেন, কংগ্রেস তার দীর্ঘদিনের সবার অংশগ্রহণের আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়েছে বলেই মনে হচ্ছে।

 

 

 

“বাংলাদেশসহ ৬ দেশে ৯৯ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানি করবে ভারত”

 

বাংলাদেশসহ ৬টি দেশে মোট ৯৯ হাজার ১৫০ টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমোদন দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। আজ শনিবার ভারত সরকারের ওয়েবসাইটে এ তথ্য দেওয়া হয়েছে। রপ্তানির তালিকায় থাকা অন্য দেশগুলো হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত, ভুটান, বাহরাইন, মৌরিতিয়াস এবং শ্রীলংকা।

দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগের বছরের তুলনায় ২০২৩-২৪ সালে নিম্ন খরিপ ও রবি মৌমুসে দেশের অভ্যন্তরে চাহিদা বাড়ায় পেঁয়াজ রপ্তানি নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এতে আন্তর্জাতিক বাজারে চাহিদা বৃদ্ধি পায়। এসব দেশে পেঁয়াজ রপ্তানি করে ভারতীয় এজেন্সি ন্যাশনাল কো-অপারেশন এক্সপোর্টস লিমিটেড (এনসিইএল)। সর্বনিম্ন দর (এল১) মূল্যে ই-প্লাটফর্মের মাধ্যমে তারা আভ্যন্তরীণ সূত্র থেকে পেঁয়াজ সংগ্রহ করে। তারপর শতভাগ আগাম মূল্য পরিশোধ ভিত্তিতে আলোচনার মাধ্যমে রেট নির্ধারণ করে গন্তব্য দেশগুলোতে এজেন্সি বা সরকার মনোনীত এজেন্সিকে সরবরাহ দিয়ে থাকে।

যেসব দেশ ভারত থেকে পেঁয়াজ কিনছে সেখানকার দাম, আন্তর্জাতিক ও আভ্যন্তরীণ দাম বিবেচনায় নিয়ে ক্রেতাদের সঙ্গে দর নির্ধারণ করে এনসিইএল। এখন যে দেশগুলোতে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে সেখানকার চাহিদা অনুযায়ী কোটা বরাদ্দ করা হয়েছে। এ ছাড়া দুই হাজার টন সাদা পেঁয়াজ রপ্তানিরও অনুমোদন দিয়েছে ভারত সরকার।

-ইত্তেফাক

 

 

দ্য ডেইলি স্টার এর শিরোনাম২৮ এপ্রিল থেকে প্রাথমিকের শ্রেণি কার্যক্রম চালু, অ্যাসেম্বলি বন্ধ”

 

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণি কার্যক্রম আগামী ২৮ এপ্রিল থেকে চলমান থাকবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

আজ শনিবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মাহবুবুর রহমান তুহিন এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, চলমান তাপদাহের কারণে কোমলমতি শিশুদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বিবেচনায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, শিশু কল্যাণ ট্রাস্ট পরিচালিত প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর লার্নিং সেন্টারে শ্রেণি কার্যক্রম চালুর বিষয়ে কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সেগুলো হলো-

এক শিফটে পরিচালিত বিদ্যালয় প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে সকাল সাড়ে ১১টা পর্যন্ত চলবে।

দুই শিফটে পরিচালিত বিদ্যালয়ে প্রথম শিফট সকাল ৮টা থেকে সাড়ে ৯টা এবং দ্বিতীয় শিফট সকাল পৌনে ৯টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত চলমান থাকবে।

প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির কার্যক্রম পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

তাপদাহ সহনীয় পর্যায়ে না আসা পর্যন্ত অ্যাসেম্বলি বন্ধ থাকবে।

 

প্রথমআলোর শিরোনাম “আবার ব্যাংকের পতন ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে”

 

এবার আরেকটি ব্যাংকের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে নিল যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এবার যে ব্যাংকটির নিয়ন্ত্রণ তারা নিয়েছে, তার নাম রিপাবলিক ফার্স্ট ব্যাংক করপোরেশন। ইতিমধ্যে এ ব্যাংকটি তারা ফুলটন ব্যাংকের কাছে বিক্রি করতেও রাজি হয়েছে।

ফিলাডেলফিয়া-ভিত্তিক রিপাবলিক ফার্স্ট ব্যাংকটি নতুন বিনিয়োগ নিয়ে বেশ কিছু বিনিয়োগকারীর সঙ্গে আলোচনায় ছিল। কিন্তু এসব আলোচনা শেষ পর্যন্ত কোনো ফল আনতে না পারায় পেনসিলভানিয়া ডিপার্টমেন্ট অব ব্যাংকিং অ্যান্ড সিকিউরিটিজ এ ব্যাংকটি নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের সংবাদে বলা হয়েছে, গত বছর যুক্তরাষ্ট্রের চারটি আঞ্চলিক ব্যাংকের পতনের পর আরও একটি আঞ্চলিক ব্যাংকের এই পরিস্থিতি দেখে বোঝা যাচ্ছে, দেশটির আঞ্চলিক ব্যাংকগুলোর কী অবস্থা।

যুক্তরাষ্ট্রের আরেক নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফেডারেল ডিপোজিট ইনস্যুরেন্স করপোরেশন রিসিভার হিসেবে কাজ করবে। শুক্রবার তারা বলেছে, আমানতকারীদের সুরক্ষা দিতে ফুলটন ব্যাংক রিপাবলিক ব্যাংকের সব আমানত অধিগ্রহণ করার পাশাপাশি সব সম্পদ কিনে নেবে।

গত ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত রিপাবলিক ব্যাংকের মোট সম্পদমূল্য ছিল ৬ বিলিয়ন বা ৬০০ কোটি ডলার; তাদের আমানত ৪ বিলিয়ন বা ৪০০ কোটি ডলার। এফডিআইসির আনুমানিক হিসাব, এই ব্যাংকের ব্যর্থতায় তাদের ক্ষতির পরিমাণ ৬৬৭ মিলিয়ন বা ৬৬ কোটি ৭০ লাখ ডলার পর্যন্ত উঠতে পারে।

এদিকে আমানত ছাড়াও রিপাবলিকের ঋণ ও অন্যান্য দায়ের পরিমাণ প্রায় ১ দশমিক ৩ বিলিয়ন বা ১৩০ কোটি ডলার, এক বিবৃতিতে এ তথ্য দিয়েছে ফুলটন। তারা আরও বলেছে, এই রিপাবলিক ফার্স্ট ব্যাংক কেনার মধ্য দিয়ে ফিলাডেলফিয়া অঞ্চলে তাদের প্রভাব আরও বাড়বে। দুই ব্যাংকের সম্মিলিত আমানতের পরিমাণ ৮ দশমিক ৬ বিলিয়ন বা ৮৬০ কোটি ডলারে উঠতে পারে।

গত বছর যেভাবে ব্যাংক কেনাবেচা হয়েছিল, এবারও সেই পদ্ধতিতে হবে। এমনভাবে তা করা হচ্ছে যাতে গ্রাহকদের গায়ে বিশেষ আঁচড় না লাগে। আগামী সোমবার অর্থাৎ ওইদিন স্থানীয় সময় সকালে নিউ জার্সি, পেনসিলভানিয়া ও নিউইয়র্কে রিপাবলিক ব্যাংকের ৩২টি শাখা ফুলটন ব্যাংকের শাখা হিসেবে কার্যক্রম শুরু করবে।

দুরবস্থা কাটিয়ে উঠতে রিপাবলিক ফার্স্ট ব্যাংক গত বছর বিনিয়োগকারী জর্জ নরক্রস এবং ফিলপ নরক্রসের সঙ্গে চুক্তি করে; কিন্তু চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে এই উদ্যোগ ব্যর্থ হয়।

ওয়াল স্ট্রিটের সূত্রে রয়টার্স বলেছে, সেই চুক্তি ব্যর্থ হওয়ার পর এফডিআইসি যথারীতি ব্যাংকটির নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে নিয়ে এটি বিক্রি করার চেষ্টা করে।

মুনাফা বাড়াতে না পেরে ও উচ্চ ব্যয়ের চাপে রিপাবলিক ফার্স্ট ব্যাংক ২০২৩ সালে কর্মী ছাঁটাই করার পাশাপাশি মর্টগেজ ব্যবসা থেকে সরে আসে।

এই পরিস্থিতিতে রিপাবলিক ফার্স্টের শেয়ারের দামেও পতন ঘটে। বছরের শুরুতে ব্যাংকটির শেয়ারের দাম ছিল দুই ডলারের কিছুটা ওপরে, এখন তা দাঁড়িয়েছে এক সেন্টের সামান্য বেশি। ব্যাংকটির বাজার মূলধন কমে ২০ লাখ ডলারের নিচে নেমে এসেছে। ফলে এই ব্যাংক কোম্পানিটির শেয়ার নাসডাকের লেনদেন থেকে বাদ পড়েছে। এখন শুধু ওটিসিতে লেনদেন হয় তাদের শেয়ার।

২০২৩ সালে বিশ্বের শিল্পোন্নত দেশের ব্যাংক খাত চাপের মুখেই ছিল। গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে চারটি ব্যাংকের পতন হয়, আর সুইজারল্যান্ডের অন্যতম বড় ব্যাংক ক্রেডিট সুইসও বিক্রি হয়ে যায়। বছরের প্রথম ভাগে যুক্তরাষ্ট্রে পরপর দুটি ব্যাংকের পতনের ঘটনায় বিশ্বজুড়ে আর্থিক খাতে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছিল।

ওই বছর যুক্তরাষ্ট্রে তিন দিনের ব্যবধানে দুটি ব্যাংকের পতন হলে অনেকের মনেই এমন শঙ্কা তৈরি হয় যে ২০০৭-০৮ সালের আর্থিক সংকটের পুনরাবৃত্তি হচ্ছে কি না। তবে শেষ পর্যন্ত তা ঘটেনি। বছরের শেষ ভাগে এসে অবশ্য আর্থিক খাতে তেমন সংকট দেখা যায়নি। তবে এবার ২০২৪ সালের এপ্রিলে মাসে এসে আবার আরেকটি ব্যাংকের পতন হলো।

ব্যাংকের এই পতনে অবশ্য গ্রাহকদের বিশেষ ক্ষতি হয়নি। নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলো শুরু থেকেই সোচ্চার থাকায় তেমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024