মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০২:৫০ অপরাহ্ন

ব্র্যাক ইয়ুথ প্ল্যাটফর্মের উদ্যোগে নতুন ভবিষ্যৎ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে আয়োজিত হয় তারুণ্যের উৎসব ‘আমরা নতুন নেটওয়ার্ক’

  • Update Time : সোমবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২৪, ৩.২০ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

ব্র্যাক ইয়ুথ প্ল্যাটফর্মের উদ্যোগে ব্র্যাক সিডিএম, সাভারে আয়োজন করা হয়েছে কার্নিভাল অব চেইঞ্জ ২০২৪ বা পরিবর্তনের উৎসব ২০২৪। দিনব্যাপী ক্যারিয়ার ম্যানেজমেন্ট, নেগোসিয়েশন স্কিল ও আর্ট থেরাপিসহ বিভিন্ন বিষয়ে ওয়ার্কশপ, আলোচনা সভা ও প্রশ্নোত্তর পর্বের মধ্যদিয়ে শেষ হয়। দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য ছিল ‘ইনস্পায়ারিং দ্য ইয়ুথ’।

 

 

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীরা ‘আমরা নতুন নেটওয়ার্কের’ সকল চেইঞ্জমেকার, উন্নয়নকর্মী, ইয়ুথ অ্যাকটিভিস্ট ও মেন্টাল হেলথ প্রফেশনালদের সঙ্গে ৬টি বিষয়ের ওপর ওয়ার্কশপে অংশগ্রহণের সুযোগ পান।

 

 

ওয়ার্কশপ শেষে একটি টেড টক স্টাইল আলোচনায় তরুণ চেইঞ্জমেকারদের সঙ্গে অংশগ্রহণ করেন কার্টুনিস্ট এবং ইয়ুথ অ্যাক্টিভিস্ট মোরশেদ মিশু। পরিবর্তনের প্রতিনিধি হিসেবে তরুণদের সামাজিক সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান কার্টুনিস্ট মোরশেদ মিশু।

 

 

টেড টক-এ সমাজের বিভিন্ন স্তরের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার লক্ষ্যে চেইঞ্জমেকারদের নানা উদ্যোগ, কাজের ক্ষেত্রে তাদের প্রতিবন্ধকতা এবং তা থেকে উত্তরণে করণীয় বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনার করা হয়।

 

 

এ ছাড়া ‘বর্তমান জলবায়ু সংকট’ শীর্ষক একটি ওয়ার্ল্ড ক্যাফে স্টাইল আলোচনায় জলবায়ু সংক্রান্ত নানা সমস্যা নিয়ে কথা বলার সুযোগ পান চেইঞ্জমেকাররা। সেশনটিতে চেইঞ্জমেকারদের সঙ্গে অংশ নেন ড. মো: লিয়াকত আলী, ডিরেক্টর, ক্লাইমেট চেইঞ্জ, আরবান ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম অ্যান্ড ডিজাস্টার রিস্ক ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রাম; সংকলিতা সোম, চিফ কো-অর্ডিনেটর, বাংলাদেশ সাসটেইনিবিলিটি অ্যালায়েন্স; ব্র্যাক।

 

 

আলোচনায় আরও অংশ নেন  শামীম আহমেদ মৃধা, প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক,ইকো নেটওয়ার্ক গ্লোবাল; তৌহিদা শিরোপা, ফাউন্ডার অ্যান্ড,সিইও, মনের বন্ধু; জাহ্নবী রহমান, সিইও অ্যান্ড কো- ফাউন্ডার, রিলাক্সি; মুরাদ আনসারী, সিইও, সাইকিওর; সাদিয়া জাহান রথি, বোর্ড ডিরেক্টর, ইকো নেট গ্লোবাল; মেহরান খান, হেড অব ব্র্যাক ইয়ুথ প্ল্যাটফর্ম ও দিতিপ্রিয়া রায় চৌধুরী, সিনিয়র ম্যানেজার, স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড কমিউনিকেশনস, ব্র্যাক ইয়ুথ প্ল্যাটফর্ম।

 

 

দ্বিতীয় দিনের আয়োজনের শেষ ভাগে ‘তরুণ এবং বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ’ শীর্ষক প্যানেল ডিসকাশনে অংশগ্রহণ করেন চেইঞ্জমেকাররা। অনুষ্ঠানে প্যানেলিস্ট হিসেবে ছিলেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ইনফ্লুয়েন্সার আরিফ জেবতিক ও ড. ইরাম মারিয়াম, নির্বাহী পরিচালক, ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব এডুকেশনাল ডেভলপমেন্ট। এ ছাড়া মডারেটর হিসেবে ছিলেন ব্র্যাক মাইগ্রেশন ও ইয়ুথ প্ল্যাটফর্মের সহযোগী পরিচালক শরিফুল হাসান।

 

 

ব্র্যাক ইয়ুথ প্ল্যাটফর্মের উদ্যোগে ‘আমরা নতুন নেটওয়ার্ক’ ট্রেইনিং প্রোগ্রামটি কীভাবে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এবং বর্তমান তরুণদের চিন্তাভাবনাকে প্রভাবিত করতে পারে সে বিষয়ে আলোকপাত করেন শরিফুল হাসান।

 

 

এরই ধারাবাহিকতায় ব্র্যাক এডুকেশন, স্কিল ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের পরিচালক সাফি রহমানের বক্তব্যের মাধ্য দিয়ে দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানের সমাপনী ঘোষণা করা হয়।

 

 

তরুণদের ইতিবাচক সামাজিক পরিবর্তনকে অনুপ্রেরণা ও স্বীকৃতি দেওয়ার লক্ষ্যে  (২৭ ও ২৮শে এপ্রিল) দু’দিনব্যাপী আয়োজিত হয় তারুণ্যের উৎসব ‘কার্নিভাল অব চেইঞ্জ ২০২৪’। স্বীকৃতি, সংলাপ, সমন্বয় এবং সহযোগিতার মাধ্যমে ব্র্যাক ইয়ুথ প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশের পরবর্তী প্রজন্মের চেইঞ্জমেকারদের অনুপ্রাণিত করা এবং ক্ষমতায়নের প্রয়াসে কাজ করে যাচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024