শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৩:৪০ অপরাহ্ন

কানাডায় শিখ নেতা নিজ্জার হত্যার দায়ে অভিযুক্ত ৩ ভারতীয় গ্রেফতার

  • Update Time : শনিবার, ৪ মে, ২০২৪, ১.৫৩ পিএম
দুর্বৃত্তের গুলিতে মৃত্যু হয় ৪৫ বছর বয়সী শিখ-কানাডিয়ান নেতা হরদীপ সিং নিজ্জারের।

শুক্রবার কানাডিয়ান পুলিশ গত বছর শিখ বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যার দায়ে তিন ভারতীয় নাগরিককে গ্রেপ্তার করে। অভিযুক্ত তিনজনের সাথে ভারত সরকারের সম্পর্ক ছিল কিনা তা তদন্ত করছে তারা।

গ্রেপ্তার তিনজন করনপ্রীত সিং (২৮), কমলপ্রীত সিং (২২) এবং করন ব্রার (২২)।

৪৫ বছর বয়সী নিজ্জারকে জুন মাসে সারের একটি শিখ মন্দিরের বাইরে গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল। এলাকটি ভ্যাঙ্কুভারের একটি বিশাল শিখ জনসংখ্যা অধ্যুষিত  শহরতলি। কয়েক মাস পরে, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ভারত সরকারের সম্পৃক্ততার প্রমাণ উদ্ধৃত করেন এবং তাতে নতুন দিল্লির সাথে কূটনৈতিক সঙ্কট সৃষ্টি হয়।

রয়্যাল কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশ তিনজনের নাম প্রকাশ করেন , তারা হলেন- করণপ্রীত সিং (২৮), কমলপ্রীত সিং (২২) এবং করণ ব্রার (২২)।

“আমরা ভারত সরকারের সাথে তাদের সম্পর্ক তদন্ত করছি,” আরসিএমপি সুপারিনটেনডেন্ট মনদীপ মুকার একটি টেলিভিশন সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন।

অটোয়ায় ভারতীয় মিশন এই মন্তব্যের কোন জবাব দেয়নি।

নিজ্জার ছিলেন একজন কানাডিয়ান নাগরিক, যিনি ভারতে একটি স্বাধীন শিখ মাতৃভূমি খালিস্তান তৈরির জন্য প্রচারণা চালিয়েছিলেনে।  কানাডায় শিখ বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীর উপস্থিতি দীর্ঘদিন ধরে নয়াদিল্লিকে বিব্রত করেছে ফলে নয়াদিল্লি  নিজ্জারকে “সন্ত্রাসী” হিসাবে চিহ্নিত করেছিল।

গত সপ্তাহে, হোয়াইট হাউস, কানাডা এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গুপ্তহত্যার পরিকল্পনায় ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থার ভূমিকা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

কানাডিয়ান পুলিশ বলেছে যে তারা মার্কিন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সাথে কাজ করেছে।  বেশী কিছু খুলে না বলে শুধু নিশ্চিৎ করেছে যে এ সংশ্লিষ্ট ঘটনায় আরো আটক হতে পারে।

“এই তদন্ত এখানেই শেষ নয়। আমরা সচেতন যে অন্যরা এই হত্যাকাণ্ডে ভূমিকা রাখতে পারে, এবং আমরা এই ব্যক্তিদের প্রত্যেককে খুঁজে পেতে এবং গ্রেপ্তার করতে সতর্ক রয়েছি,” বলেছেন সহকারী RCMP কমিশনার ডেভিড তেবোল৷

পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার আলবার্টার এডমন্টন শহরে এই তিনজন  ভারতীয় নাগরিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। সোমবারের মধ্যে তাদের ব্রিটিশ কলম্বিয়া পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

ট্রুডো সেপ্টেম্বরে ঘোষণা করেছিলেন যে কানাডিয়ান কর্তৃপক্ষ এই হত্যাকাণ্ডের সাথে ভারতীয় সরকারী এজেন্টদের যুক্ত থাকার অভিযোগগুলি খতিয়ে দেখছে। নয়াদিল্লি ট্রুডোর দাবিকে অযৌক্তিক বলে প্রত্যাখ্যান করেছে।

কানাডা ভিত্তিক ওয়ার্ল্ড শিখ অর্গানাইজেশন অ্যাডভোকেসি গ্রুপের আইনী পরামর্শদাতা এবং মুখপাত্র বলপ্রীত সিং বলেছেন, “আমরা গ্রেপ্তারকে স্বাগত জানাই, তবে এটি আরও অনেক প্রশ্নের জন্ম দেয়।”

“যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে তারা একটি হিট স্কোয়াডের অংশ, কিন্তু এটা স্পষ্ট যে তারা নির্দেশিত হয়েছিল,” তিনি ফোনে বলেছিলেন।

কানাডা সরকার তদন্তে সহযোগিতা করার জন্য ভারতকে চাপ দিয়ে আসছিল। গত নভেম্বরে, মার্কিন কর্তৃপক্ষ বলেছে যে একজন ভারতীয় সরকারী কর্মকর্তা মার্কিন মাটিতে গুরপতবন্ত সিং পান্নুন নামে একজন শিখ বিচ্ছিন্নতাবাদী এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার দ্বৈত নাগরিককে হত্যার চেষ্টার চক্রান্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

পান্নুন একটি বিবৃতিতে বলেন, “যদিও এটি  আজকের পদক্ষেপ  তবুও একটি ধাপ এগিয়ে গেল, এটি শুধু ঘটনাকে একটা আঁচ দেয়।” কানাডার মাটিতে কানাডিয়ানদের বিরুদ্ধে এই ধরনের অপরাধ করা সক্ষম এবং সেটি স্থায়ী হতে পারে  এমন নেটওয়ার্কগুলিকে ভেঙে ফেলার জন্য পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024