রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন

সেলিম প্রধানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৬ মে, ২০২৪, ৫.৫৮ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হিসেবে আলোচিত সেলিম প্রধানের মনোনয়নপত্র বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে আদালতের গুরুত্বপূর্ণ সময় নষ্ট করায় সেলিম প্রধানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। ফলে অবৈধভাবে সম্পদ অর্জন ও অর্থপাচারের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত আসামি সেলিম প্রধানের নির্বাচনে অংশগ্রহণ সুযোগ আর রইল না।

আজ প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আট বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে সেলিম প্রধানের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ কে এম নুরুল আলম। ইসির পক্ষে শুনানি করেন খান মোহাম্মদ শামীম আজিজ ও আশফাকুর রহমান। ওই নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থী হাবিবুর রহমানের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। তাকে সহযোগিতা করেন ব্যারিস্টার মাহিন এম রহমান।

শুনানির শুরুতে সেলিম প্রধানের আইনজীবী তার আবেদনটি নন-প্রসিকিউশনের (মামলা না চালানো) জন্য আদালতের কাছে আর্জি জানান। তখন আপিল বিভাগ বলেন, আপনাদের জরুরি কথা বিবেচনা করে আবেদনটি আপিল বিভাগের লিস্টে আনা হয়েছে। এখন বলছেন নন-প্রসিকিউশন করবেন। সব কিছুর একটা সীমা থাকা দরকার। এরপর আদালতের সময় নষ্ট করায় সেলিম প্রধানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দেন অবৈধভাবে সম্পদ অর্জন ও অর্থপাচারের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত আসামি সেলিম প্রধান। ২৩ এপ্রিল যাচাই বাছাই শেষে মানি লন্ডারিং ও দুদকের মামলায় সাজার কারণে রিটার্নিং কর্মকর্তা তার মনোনয়ন বাতিল করেন। পরে মনোনয়নের বৈধতা চেয়ে জেলা প্রশাসক বরাবর সেলিম প্রধান আপিল করলে ২৮ এপ্রিল জেলা প্রশাসক খারিজ করে মনোনয়ন বাতিল বহাল রাখেন। ৩০ এপ্রিল হাইকোর্টে নিজের প্রার্থিতার বৈধতা ও প্রতীক বরাদ্দ চেয়ে রিট করেন সেলিম প্রধান। হাইকোর্ট সেলিম প্রধানের প্রার্থিতার বৈধতা ও প্রতীক বরাদ্দের আদেশ দেন।

সেই আদেশের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার জজ আদালতে আপিল করেন রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ২ মে সেলিম প্রধানের প্রার্থিতা ও প্রতীক বরাদ্দে হাইকোর্টের আদেশের ওপর স্থিতাবস্থা জারি করেন এবং ৬ মে আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম তার প্রার্থিতা ও প্রতীক বরাদ্দে দিতে হাইকোর্টের আদেশ আট সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেন।

পরবর্তীতে সেলিম প্রধানের পক্ষে উক্ত স্থগিতাদেশ খারিজের জন্য একটি দরখাস্ত দাখিল করা হয় এবং আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম উক্ত দরখাস্ত শুনানির জন্য পূর্ণাঙ্গ আপিল বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আট বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ আপিল বেঞ্চে উক্ত স্থগিতাদেশ খারিজের দরখাস্ত শুনানিকালে সেলিম প্রধানের আইনজীবী উক্ত দরখাস্ত প্রত্যাহার (নন প্রসিকিউশন) করার আবেদন করেন।

প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আট বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ আপিল বেঞ্চ আদালতের গুরুত্বপূর্ণ সময় নষ্ট করায় সেলিম প্রধানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন এবং একই সঙ্গে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তার প্রার্থিতা বাতিলের আদেশ বহাল রেখেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024