বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৪:৫৮ অপরাহ্ন

৯৩ বছর বয়সে আবার বিয়ে করলেন মিডিয়া টাইকুন রুপার্ট মারডক

  • Update Time : সোমবার, ৩ জুন, ২০২৪, ১.০৫ পিএম
রুপার্ট মারডক তার নতুন স্ত্রী এলেনা জুকোভার সাথে

সারাক্ষণ ডেস্ক

৯৩ বছর বয়স্ক মিঃ মারডক শনিবার তার ৬৭ বছর বয়স্কা নতুন স্ত্রী এলেনা জুকোভার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।  জুকোভা একজন অবসরপ্রাপ্ত রাশিয়ান জীববিজ্ঞানী। প্রাক্তন পুলিশ চ্যাপ্লেন অ্যান লেসলি স্মিথের সাথে তার বাগদান ২০২৩ সালের এপ্রিলে হঠাৎ বন্ধ হওয়ার পরপরই তিনি মিসেস জুকোভার সাথে ডেটিং করছেন বলে গুজব ছড়িয়ে পড়েছিল।

ছয় সন্তানের পিতা, অস্ট্রেলিয়ায় জন্মগ্রহণকারী মিস্টার মারডক নিউজ কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান ইমেরিটাস, যেটি ফক্স নিউজ, ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল, সান এবং টাইমসের মালিকানা বহন করে। তিনি গত বছর ফক্স এবং নিউজ কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে তার ছেলে লাচলানকে উভয় কোম্পানির প্রধানের দায়িত্ব দেন।

রুপার্ট মারডকের ক্যালিফোর্নিয়ার আঙ্গুর বাগানে একটি অনুষ্ঠানে এই জুটির বিয়ে হয়েছিল।

জানা যায়, মিঃ মারডক এবং মিসেস ঝুকোভা তার একজন প্রাক্তন স্ত্রী, চাইনিজ বংশোদ্ভূত উদ্যোক্তা ওয়েন্ডি ডেং আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে দেখা করেছিলেন। তার অন্যান্য প্রাক্তন স্ত্রীরা হলেন অস্ট্রেলিয়ান ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট প্যাট্রিসিয়া বুকার, স্কটিশ বংশোদ্ভূত সাংবাদিক আনা মান এবং মার্কিন মডেল ও অভিনেত্রী জেরি হল।

মিসেস ঝুকোভা এর আগে রাশিয়ান তেল বিলিয়নেয়ার আলেকজান্ডার ঝুকভকে বিয়ে করেছিলেন, যখন তাদের মেয়ে দাশা যিনি একজন সমাজপতি এবং ব্যবসায়ী। রুপার্ট মারডক ১৯৫০-এর দশকে অস্ট্রেলিয়ায় তার কর্মজীবন শুরু করেন – অবশেষে ১৯৬৯ সালে যুক্তরাজ্যে নিউজ অফ দ্য ওয়ার্ল্ড এবং সান সংবাদপত্র কিনেছিলেন।

পরে তিনি নিউ ইয়র্ক পোস্ট এবং ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল সহ বেশ কয়েকটি মার্কিন প্রকাশনাও কিনে নেন। ১৯৯৬ সালে, তিনি ফক্স নিউজ চালু করেন যা এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে জনপ্রিয় টিভি নিউজ চ্যানেল।

২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠিত নিউজ কর্প-এর মাধ্যমে মিঃ মারডক শত শত স্থানীয়, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক মিডিয়া আউটলেটের মালিক এখন।

যওি তার ক্যারিয়ার বিতর্কমুক্ত হয়নি। তার সবচেয়ে ক্ষতিকর মুহূর্তগুলির মধ্যে একটি ছিল  যুক্তরাজ্যের কুখ্যাত ফোন-হ্যাকিং কেলেঙ্কারি।দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল ফোন হ্যাকিং কেলেঙ্কারিটি ছিল একটি বিতর্ক যা বর্তমানে বিলুপ্ত নিউজ অফ দ্য ওয়ার্ল্ড এবং রুপার্ট মারডকের মালিকানাধীন অন্যান্য ব্রিটিশ সংবাদপত্রের সাথে জড়িত। সংবাদপত্রের কর্মচারীরা ফোন হ্যাকিং , পুলিশ ঘুষ, এবং গল্পের তাড়নায় বেসামাল প্রভাব ফেলে তার ব্যবসায়।

গত সেপ্টেম্বরে, মিঃ মারডক ঘোষণা করেন যে তিনি তার মিডিয়া সাম্রাজ্যে নেতৃস্থানীয় ভূমিকা থেকে সরে যাচ্ছেন এবং তার ছেলে লাচলানের হাতে চাবি তুলে দিয়েছেন । এবং পরে ফক্স এবং নিউজ কর্পোরেশন উভয়ের চেয়ারম্যান এমেরিটাসের ভূমিকা গ্রহণ করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024