সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

মিয়ানমারে যুদ্ধ : টেকনাফ সীমান্তে আবারও বিস্ফোরণের শব্দ

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল, ২০২৪, ৪.১৪ পিএম
ফাইল ফটো

জাফর আলম, কক্সবাজার : কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তে আবারও বিস্ফোরণের বিকট শব্দ শোনা যাচ্ছে।বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) দুপুরে থেমে থেমে বিস্ফোরণের শব্দ পায় সীমান্তের মানুষ। সীমান্তের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের মৌলভীবাজার, ওয়াব্রাং, পুরানবাজার, ফুলের ডেইল, চৌধুরীপাড়া, সাইটপাড়া, রঙ্গিখালী, লেদা, মুচনী, দমদমিয়া, টেকনাফ পৌরসভার চৌধুরীপাড়া, কেকে পাড়া, জালিয়াপাড়া থেকে শুরু করে সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীরদ্বীপের নাফনদের ওপারে বিকট শব্দের বিস্ফোরণ হচ্ছে।

যা বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে। বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছেন সেন্টমার্টিন দ্বীপের বাসিন্দারা।নাফনদের ওপারে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের মংডু শহরের উত্তরের বলিবাজার, নাকপুরা, দক্ষিণে হাস্যুরাতা, নাইক্ষ্যংদিয়া, মাঝামাঝি সিকদারপাড়া, দলিয়াপাড়া, কদিরবিল, নুরুল্যাহপাড়াকে ঘিরে মর্টার শেলসহ নানা বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যাচ্ছে।সীমান্ত এলাকার মানুষের ধারণা এবং টেকনাফ-মিয়ানমার সীমান্ত বাণিজ্য সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের অধিকাংশ এলাকাই এখন আরাকান আর্মির দখলে। সম্ভবত এটা এলাকা পুন:রুদ্ধারে মিয়ানমারের জান্তা বাহিনী চেষ্টা করছে।

এর জের ধরে হামলা হচ্ছে।হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী জানান, গত ৫ দিন ধরে হ্নীলা ও মিয়ানমারের সীমান্তের ওপারে গোলাগুলির শব্দ শোনা যায়নি। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আবারও থেমে থেমে বিকট শব্দ শোনা যাচ্ছে।

সাবরাং ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রেজাউল করিম জানান, ৫ দিন পর সকাল থেকে বিকট শব্দ শোনা যাচ্ছে। নাফনদের ওপারে আবারও সংঘর্ষ চলছে।সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য আক্তার কামাল বলেন, গত ৫ দিন ওপার থেকে বিস্ফোরণের শব্দ আসছে।

দ্বীপে বসেই শোনা যাচ্ছে এসব শব্দ। দুই পক্ষের মধ্যে আবারও সংঘাত শুরু হয়েছে।টেকনাফের বিজিবি-২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. মহিউদ্দিন আহমেদ জানান, সীমান্তের এ পরিস্থিতিতে বিজিবি সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024