শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন

‘বীর মুক্তিযোদ্ধা শিব নারায়ণ দাশ মরণোত্তর দেহদানের মাধ্যমে মহত্বের অন্যন্য দৃষ্টান্ত রেখেছেন’

  • Update Time : রবিবার, ২১ এপ্রিল, ২০২৪, ৬.৫৫ পিএম

সারাক্ষণ ডেস্ক

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. দীন মোঃ নূরুল হক বলেছেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা শিব নারায়ণ দাশ মরণোত্তর দেহদানের মাধ্যমে মহত্বের অন্যন্য দৃষ্টান্ত রেখেছেন। রবিবার (২১ এপ্রিল) বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার মূল নকশাকার এবং মুক্তিযোদ্ধা কুমিল্লা নিবাসী শিব নারায়ণ দাশ (৭৫)-এর দানকৃত মরদেহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে হস্তান্তর করা হয়। উপাচার্য অধ্যাপক ডা. দীন মোঃ নূরুল হক এই ধরণের মহৎ উদ্যোগের প্রশংসা এবং মরণোত্তর দেহ দানকারীর ছেলে অর্ণব আদিত্য দাশসহ পরিবারের সকলকে এই ত্যাগের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি দেশের সকল মানুষের প্রতি এই রকম মহতী কাজে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানান।

 

উপাচার্য অধ্যাপক ডা. দীন মোঃ নূরুল হক-এর উপস্থিতিতে এনাটমি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. লায়লা আনজুমান বানুর কাছে হস্তান্তর করা হয়। উপাচার্য বলেন, বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার অন্যতম ও মূল নকশাকার এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের মুক্তিযোদ্ধা কুমিল্লা নিবাসী শিব নারায়ণ দাশ তার চোখের দু’টি কর্ণিয়া দান করে গেছেন। ইতিমধ্যে সেই কর্ণিয়া দিয়ে দুই জন মানুষের চোখে সফলভাবে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। তিনি একজন মহান ব্যক্তিত্ব। তাঁর এই দানে আমি অভিভূত ও গর্বিত এবং সম্মানিত বোধ করছি। তাঁর মরদেহ প্ল্যাস্টিনেশন পদ্ধতিতে সংরক্ষণ করা হবে। বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার মূল নকশাকার মুক্তিযোদ্ধা শিব নারায়ণ দাশের এই দেহ দানের মাধ্যমে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০০ জন বিদেশী ছাত্রছাত্রীসহ ৪ হাজার ৮ শত ৭ জন চিকিৎসা পেশায় উচ্চ শিক্ষা গ্রহণকারী ছাত্রছাত্রী প্রশিক্ষণ গ্রহণের ক্ষেত্রে উপকৃত হবেন। তিনি মরণোত্তর দেহদানের মাধ্যমে মহত্বের অন্যন্য দৃষ্টান্ত রেখে গেলেন।

অর্ণব আদিত্য বলেন, আমার বাবা শিব নারায়ণ দাশ আজীবন জ্ঞান অর্জনসহ দেশকে শিক্ষণীয় বিষয়ে সমৃদ্ধ দেখতে চেয়েছেন। সে লক্ষেই তিনি তাঁর জীবন দান করে গেছেন। আমি ও আমার মাও মরণোত্তর দেহদানের অঙ্গীকার করেছি। আপনারা সবাই আমাদেরকে আশীর্বাদ করবেন।


এনাটমি বিভাগের চেয়ারম্যান ও জেনেটিক্স এন্ড মলিকিউলার বায়োলজি বিষয়ক অধ্যাপক ডা. লায়লা আনজুমান বানু বলেন, ইতিমধ্যে ১৫০জন মানুষ মরণোত্তর দেহদানের অঙ্গীকার আনুষ্ঠানিকভাবে সম্পন্ন করেছেন। মানুষ যেভাবে সাড়া দিচ্ছেন প্ল্যাস্টিনেশন ল্যাব এন্ড মিউজিয়াম কমপ্লেক্সটি একটি আন্তর্জাতিক মানের সমৃদ্ধ ল্যাবে শীঘ্রই উন্নীত হবে।

এ সময় জাসদ নেত্রী জনাব শিরীন আখতার, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ ছয়েফ উদ্দিন আহমদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মোঃ হাবিবুর রহমান দুলাল, এনাটমি বিভাগের চেয়ারম্যান ও জেনেটিক্স এন্ড মলিকিউলার বায়োলজি বিষয়ক অধ্যাপক ডা. লায়লা আনজুমান বানু, অধ্যাপক ডা. নাহিদ ফারহানা আমিন, সহযোগী অধ্যাপক ডা. লতিফা নিশাত, ডা. শাফিনাজ গাজী, সহকারী অধ্যাপক ডা. শারমিন আক্তার সুমি, ডা. মোঃ মহিউদ্দীন মাসুম, স্বর্গীয় শিব নারায়ণ দাশ-এর সহধর্মিনী গীতশ্রী চৌধুরী, পুত্র অর্ণব আদিত্য দাশ প্রমুখসহ এনাটমি বিভাগের শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

উল্লেখ্য বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার মূল নকশাকার এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা কুমিল্লা নিবাসী শিব নারায়ণ দাশ গত ২১ এপ্রিল ২০২৪  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরলোকগমন করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

kjhdf73kjhykjhuhf
© All rights reserved © 2024